বৃহস্পতিবার, ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

আওয়ামী লীগ নেতার কিল- ঘুষিতে যুবলীগ নেতা হাসপাতালে

 

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ

লক্ষ্মীপুরে আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রহমানের কিল-ঘুষি খেয়ে বুকের ব্যথা নিয়ে বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন গিয়াস উদ্দিন সোহাগ (৪৫) নামে এক যুবলীগ নেতা।

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ১০টার দিকে শহরের উপশম হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুর রহমান নাহিদ যুবলীগ নেতা চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে নিশ্চিত করেন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে শহরের থানা রোড এলাকায় সত্য নারায়ণ শ্রী মিষ্টির দোকানের সামনে এ মারামারির ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে যুবলীগ নেতা সোহাগকে হাসপাতালে দেখতে আসেন সদর উপজেলার পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক জেলা যুবলীগের সভাপতি এ.কে.এম সালাহ্ উদ্দিন টিপু।

অভিযুক্ত আব্দুর রহমান সদর উপজেলার লাহারকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। আহত সোহাগ একই ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক যুবলীগের সভাপতি ছিলেন। সন্ধ্যা সদর মডেল থানায় আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রহমান ও যুবলীগ নেতা সোহাগ একটি শালিসি বৈঠকে ছিলেন। বৈঠক শেষে এই দুই আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতাসহ একাধিক ব্যক্তি একসঙ্গে সত্য নারায়ণ দোকানে বসে নাস্তা করেন। এরমধ্যেই আব্দুর রহমান ও সোহাগ দু’জনেই লাহারকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রার্থিতা ঘোষণা করেন। এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ওই দোকানের সামনে বের হলে আওয়ামী লীগ আব্দুর রহমান যুবলীগ নেতা সোহাগকে একাধিক কিল-ঘুষি মারে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন যুবলীগ নেতা গিয়াস উদ্দিন সোহাগ সাংবাদিকদের বলেন, দীর্ঘ বছর আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। সামনে আমাদের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। আমি একজন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী। আমাদের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান ভাইও চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী। আমি কি জন্য চেয়ারম্যান প্রার্থী এ কারণে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে আব্দুর রহমান ভাই আমাকে কিল-ঘুষি মারে।

জানতে চাইলে অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রহমান বলেন, মারামারি হয়নি। তর্ক বিতর্ক হয়েছে। কিন্তু সোহাগ আমাকে মারছে। উপস্থিত যুবলীগ নেতা আব্বাস সাক্ষী।

উপশম হাসপাতালের চিকিৎসক বলেন, সোহাগ নামে এক ব্যক্তি বুকের ব্যথা অনুভব নিয়ে হাসপাতালে আসলে তাকে ভর্তি দেওয়া হয়। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

দেশ জার্নাল / সো আ

দেশ জার্নাল বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----