বুধবার, ৭ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

মেঘনা নদীতে ধরাপড়ছে অসংখ্য পাঙ্গাশ মাছ।

 

 

দক্ষিণ অঞ্চলের জেলা বরিশাল, ভোলা, লক্ষীপুর, চাঁদপুরের নদীতে গত ২৯শে অক্টোবর থেকে ধরা পড়ছে অসংখ্য পাঙ্গাশ মাছ, অন্যন্য সময়ের চেয়ে এবারের এই সময়ে দেখা যাচ্ছে এই পাঙ্গাশ।

বড় বড় দানব আক্ররীতির সব পাঙ্গাশ মাছ, ওজনে ১৫ থেকে ২৫ কেজি পরর্যন্ত পাওয়ার যাচ্ছে এই মাছ।

সরজমিনে আলতাফ মাস্টার মাছ ঘাট, সাজু মোল্লার মাছ ঘাট, চরভৈরব মাছ ঘাটে গিয়ে দেখা যায় যে জেলেরা সাধ সন্ধেয় মাছ ধরতেছে, জেলেরা খুবই খুশি তাদের জালে নদীর এই বড় বড় পাঙ্গাশ ধরা পড়ায়।

যদিও বাংলাদেশের বাজারে নদীর পাঙ্গাসের তুলনায় চাষ করা পাঙ্গাসই বেশি ও অনেক সস্তা দামে পাওয়া যায়। একটি ১০/১২ কেজি ওজনের নদীর পাঙ্গাস মাছ যেখানে ৮০০-১০০০ টাকার মতো প্রতি কেজিতে বিক্রি হয়, সেখানে চাষের মাছের কেজি ওজন ভেদে ১৫০-২৫০ টাকার মতো দরে বিক্রি হয়।

হঠাৎ নদীতে এক সাথে এতো পাঙ্গাশ দরা পড়ার কারন কী,মৎস্য কর্মকর্তা, আড়তদার ও গবেষকদের মধ্যে চাঁই দিয়ে মাছ ধরা ও বেহুন্দি জাল ব্যবহার অনেকাংশে কমিয়ে আনতে পারায় নদীতে পাঙ্গাস মাছের বড় হবার সুযোগ তৈরি হয়েছে। এবার ইলিশ মাছের প্রজনন মৌসুম উপলক্ষে গত ২৮শে অক্টোবর পর্যন্ত প্রায় দু মাস নদীতে মাছ ধরা বন্ধ ছিলো। ফলে এ সময়ে পাঙ্গাস মাছও অবাধ বিচরণের সুযোগ পায়।

দেশ জার্নাল /এস.এম

দেশ জার্নাল বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়