সোমবার, ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

রায়পুর সরকারি  কলেজে শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

 রায়পুর সরকারি  কলেজে শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। আজ ২১ ফেব্রুয়ারী
শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে উত্তোলন করার মাধ্যমে রায়পুর সরকারি  কলেজের কার্যক্রম শুরু হয়।
কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর আমানত হোসেন দিদারের নেতৃত্বে পতাকা উত্তোলন করা হয়। কলেজের সকল শিক্ষক ও কর্মচারী সকাল ৯:০০ টায়  কলেজ শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। সকাল ১০ টায় কলোজের শেখ রাসেল দেয়ালিকায় “শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস” উপলক্ষে রচিত দেয়ালিকা উন্মোচন করেন কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর আমানত হোসেন দিদার। সকাল ১০:৩০ টায় কলেজ অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।অধ্যক্ষ প্রফেসর আমানত হোসেন দিদার সভাপতিত্বে এস এম রিয়াজুল করিমের সঞ্চালনা হারুনুর রশিদ, আব্দুল করিম,উম্মে সালমা , জিসান আহমেদ বক্তব্য রাখেনা ।
অধ্যক্ষ প্রফেসর আমানত হোসেন দিদার বক্তব্যে বলেন, “ভাষা শহিদরা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। তাদের অবদানের জন্যই বাংলা ভাষা রাষ্ট্র ভাষার মর্যাদা পেয়েছে এবং এরই ধারাবাহিকতায় বাংলা ভাষাকে কেন্দ্র করে ২১ শে ফেব্রেুয়ারি বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হচ্ছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণের মাধ্যমেই ১৯৫২ সালের রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন চুড়ান্ত রূপ পায়। ২১ ফেব্রুয়ারি আমাদের প্রেরণার উৎস, বাঙ্গালি জাতির আশা আকাঙ্খার প্রতীক এবং এই ধারাবাহিকতায় বাংলা ভাষা ভিত্তিক যে বাঙ্গালি জাতীয়তাবাদের সৃষ্টি হয়েছে তারই বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে পাকিস্তান আমলের প্রতিটি আন্দোলনে এবং এর মাধ্যমেই স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয় ঘটেছে। ৫২ এর ফেব্রুয়ারি ২১ এর ভাষা শহিদদের আত্মত্যাগের তাৎপর্য বর্তমান প্রজন্মকে বুকে ধারণ ও লালন করতে হবে। তবেই শহিদদের আত্মা শান্তি পাবে। বর্তমানে আমাদের দাবি হলো বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ছাত্রীরা ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী থেকে পাঠ, কবিতা আবৃতি ও ভাষার গান পরিবেশন করেন। এরপর অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরণ, আলোচনা ও মোনাজাতের পর কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আমানত হোসেন অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন

দেশ জার্নাল বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----