বৃহস্পতিবার, ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

রায়পুরে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন, থানায় মামলা গ্রেফতার ১

 

নুরুল আমিন ভূঁইয়া দুলাল ,নিজস্ব প্রতিবেদক

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলায় জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ৩০ (সেপ্টেম্বর) শনিবার রাতে ১০ টার দিকে এই খুনের ঘটনার ঘটে বলে জানা যায়। ছোট ভাই সাংবাদিক দেলোয়ার হোসেন মৃধ্যার হাতে তার বড় ভাই সাইফুল আলম(৬০) খুনের ঘটনায় ঘটে ।
ঝগড়ার এক পর্যায়ে এ সময় দেবরের হাত থেকে বাবাকে বাঁচাতে গিয়ে আহত হয়েছেন খুন হওয়া সাইফুল আলমের স্ত্রী।
শনিবার রাতে দিকে উপজেলার বামনী ইউনিয়নের কবিরহাট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তির ছেলে, পুলিশ ও রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, জমি নিয়ে সাইফুল আলমের সঙ্গে তাঁর ছোট ভাই দেলোয়ার মৃধ্যার বিরোধ ছিল দীর্ঘদিনের । রাতে এ নিয়ে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে সাইফুল আলমের মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করেন দেলোয়ার ।
এসময় ঘটনাস্থল থেকে সাইফুল আলমকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন ।
মারামারি থামাতে গিয়ে ও স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে আহত হন খুন হওয়ার সাইফুল আলম স্ত্রী নাসিমা বেগম। তিনি বলেন, দেবর দেলোয়ারের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তাঁর স্বামী মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এ সময় এলাকাবাসীর সহায়তায় তাকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল নিলে তিনি মারা যান।
এদিকে সাংবাদিক আহত হওযার ঘটনা সম্পর্কে স্থানীয় জনগণ বলেন সাংবাদিক দেলোয়ার মিধ্যার নেতৃত্বে থাকা কতিপয় সাংবাদিক নামধারী আবু মুসা মোহন, শিমুল হোসেন, দেলোয়ার মৃধ্যা সহ সাইফুল আলম এর পরিবারের উপর হামলা চালায়। হামলা শেষে খুনের ঘটনার সম্পৃক্ত থাকায় কতিপয় সাংবাদিকরা গনপিটনির শিকার হন। এর পর তারা রায়পুর সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হন। তাই হাসপাতালে ভর্তি হওয়া অবস্হায় তারা যখন জানতে পারেন সাইফুল আলমের মৃত্যু ঘটেছে। মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া মাত্রই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে তাহারা হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায় বলে জানিয়েছে হাসপাতাল সূত্র ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিপন বড়ুয়া তিনি বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। সাইফুল আলমের লাশের সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় দেলোয়ার হোসেন মৃধা, আবু মুসা মোহন, শিমুল হোসেন সহ ৯ জনের বিরুদ্ধে থানায় খুনের মামলা হয়েছে এরই মধ্যে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে তার নাম শিমু আক্তার আসামিদের গ্রেফতারের জন্য সাড়াসি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। শেখ কিন্ডারগার্ডেন স্কুলের শিক্ষিকা খুনের সাথে জড়িত দেলোয়ার মিধ্যার শালী। অভিযান অব্যাহত রয়েছে ।

দেশ জার্নাল বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----