বৃহস্পতিবার, ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

লক্ষ্মীপুরে গৃহবধূ পান্নাকে হত্যার চেষ্টা, থানায় মামলা দায়ের

 

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে পূর্ব বিরোধের জেরে পান্না আক্তার (৩৫) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে ইমান আলী, ফরহাদ হোসেন, আনোয়ার হোসেন, মোঃ শাকিল মিঝি,বিল্লাহ হোসেন ও অজ্ঞাতসহ ১৫ থেকে ১৬ জনের একটি অস্ত্রসজ্জিত চক্র।

বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) উপজেলার ১০নং রায়পুর ইউনিয়নের মিতালি বাজারের আছমা মার্কেটের সামনের সড়কে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা নাগাদ এ হামলা চালায় অভিযুক্তরা। এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মেরে টানাহেঁচড়ার এক পর্যায়ে মাথায় কোপাতে গেলে ভুক্তভোগী পান্না ডান হাত দিয়ে ঠেকালে তিনটি আঙুল জখম হয়। আহত অবস্থায় পুলিশ তাকে উদ্ধার করে রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে অবস্থার অবনতি ঘটায় উন্নত চিকিৎসার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসক আহত গৃহবধূ পান্নাকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

ঘটনার পরদিন শনিবার (২৩ মার্চ) আহত পান্নার মা ফাতেমা বেগম (৫৫) বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত ৩-৪ জনের নামে রায়পুর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন।ফাতেমা বেগম বলেন, সন্ত্রাসীরা আমার মেয়েকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করে। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিলে কর্তৃপক্ষ তাকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।

জানা যায়, প্রতিবেশী তাজুল ইসলাম হাওলাদারের (১১নং আসামি) নির্দেশে ধারালো চেনি,লোহার রড়,হকিস্টিক, জিআই পাইপ,কাঠের রোল,লাঠিসোঁটা দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালায় এজাহার ভুক্ত আসামিরা।

যোগাযোগ করলে অভিযুক্ত তাজুল ইসলাম হাওলাদার বলেন, আমার স্ত্রীকে পান্না বেগম মিতালি বাজারে চুলে ধরে টানাহেঁচড়া করে। পরে স্থানীয় লোকজন পান্না বেগমকে মারধর করে। তবে আমার লোকজন কোনো মারধর করেনি।

এজাহারের বিষয়ে রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তদন্ত মোঃ সামসুল আরেফিন বলেন, এজাহার হাতে পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দেশ জার্নাল / সো আ

দেশ জার্নাল বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----