সোমবার, ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

লক্ষ্মীপুরে চেয়ারম্যান বিরুদ্ধে হুমকি দিয়ে সরকারি সড়ক পরিবর্তন করার অভিযোগ

 

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার ১নং ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড, ক্যাম্পেরহাট ঝাউডগী গ্রামের তছলিম,বেপারী, পিতা জাবেদ আলী বেপারী ও চেয়ারম্যান দুলাল হাওলাদার এর বিরুদ্ধে হুমকি ধামকি দিয়ে পুরনো সরকারি সড়কের নকশা পরিবর্তন করে নতুন সড়ক নির্মাণ করার অভিযোগ উঠেছে।
সরকারি রাস্তার গতিপথ পরিবর্তন করার বিষয়ে অভিযোগ ও প্রতিকার চেয়ে গত ৯ এপ্রিল ২০২৪, আব্দুর রহিম বাদী হয়ে রায়পুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ করেও কোন ন্যায় বিচার পাননি বলে জানান ভুক্তভোগী পরিবার।
১৩ মে ( সোমবার) এমন অভিযোগের সত্যতা যাচাই করতে সাংবাদিকদের একটি টিম সরজমিনে গেলে ভুক্তভোগী পরিবার জানান, ” আমাদের বাড়িসহ আরও প্রায় ২০০ থেকে ৩০০ পরিবারের চলাচলের জন্য হায়দারগঞ্জ টু ঝাউডগী হয়ে বোরো চর এবং পার্শ্ববর্তী চাঁদপুর জেলার হাইমচর উপজেলার হাওলাদার বাজারের সাথে সংযুক্ত রাস্তাটি বিগত ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে ৬,৫০০০ টাকা (এল জি এসপি -৩) (বিবিজি) এবং ২০২২-২০২৩ অর্থ বছরে এল জি এসপি -৩) এর আওতায় ২,৫০,০০০ টাকা বরাদ্দের মাধ্যমে মোট দৈর্ঘ্য (৪৮০ মিটার +১৪৬) মিটার মোট ৬২৬ মিটার ব্রিক সলিং এর কাজ বাস্তবায়ন করা হয়েছে। যা বর্তমানে সরকারের উন্নয়নমূলক রাস্তা হিসেবে দৃশ্যমান। উক্ত রাস্তাটি তছলিম ও চেয়ারম্যান দুলাল হাওলাদার স্থানীয় ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে নানাভাবে আমাদেরকে হুমকি দিয়ে চেয়ারম্যান আমাদের কাছ থেকে একটা সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে বন্ধ করার পায়তারা করছে এবং তছলিম উক্ত রাস্তার অনুমান ১৫-২০ হাত দূরে আরেকটি রাস্তা নির্মাণ কাজ পরিচালনা করছেন যাতে বর্তমান সরকারি সড়কটি বন্ধ করে দেওয়া যায়।” ভুক্তভোগী পরিবার আরও বলেন, বিষয়টি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, বর্তমান ওয়ার্ড মেম্বার এবং সাবেক ওয়ার্ড মেম্বার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিদেরকে জানিয়েও কোন প্রতিকার না পেয়ে গণমাধ্যমের কাছে বিষয়টি তুলে ধরে কর্তৃপক্ষের কাছে একটা সুষ্ঠু বিচার দাবী করছি। ”
স্থানীয় সূত্রে আরও জানা যায়, ” যে, বিগত ৩০-৩৫ বছর পূর্বে একই ব্যক্তি কর্তৃক ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে মানুষের চলাচলের মাটির রাস্তাটি বর্তমান স্থানে স্থানান্তর করেছিলেন। আমরা গরীব ও অসহায় বলে আমাদের পক্ষে কোন কেউ নেই। ” আমরা এর সুষ্ঠু বিচার চাই। ”
এবিষয়ে অভিযুক্ত তছলিম বেপারী বলেন, ” সড়কে প্রায় সময় দুর্ঘটনা হয় সেজন্য নিজের প্রয়োজনে চেয়ারম্যানের সঙ্গে কথা বলে সড়কটি পরিবর্তন করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ”

এবিষয়ে ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার নুরুল আমীন বলেন, ” বিষয়টি চেয়ারম্যান জানে আমি এবিষয়ে কিছু বলতে চাই না । ”
এবিষয়ে ১নং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দুলাল হাওলাদারের কাছে কয়েকজন গণমাধ্যম কর্মী তথ্য সংগ্রহে গেলে তিনি সাংবাদিকদের কোন তথ্য না দিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে বের হয়ে যেতে বলেন ।
এবিষয়ে রায়পুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমরান খান বলেন, ” বিষয়টি দুঃখজনক একটা লিখিত অভিযোগ দিন আমি দ্রুত ব্যবস্থা নিব। “

দেশ জার্নাল বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----