সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

লক্ষ্মীপুরে বিএনপি কারাবন্দি ২৫ নেতাকর্মীকে মুক্তি দিতে হুশিয়ারি

 

নুরুল আমিন ভূঁইয়া দুলাল:- নিজস্ব প্রতিবেদক

লক্ষ্মীপুরে কারাবন্দি বিএনপির ২৫ নেতাকর্মীর মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিবাদ সভায় জেলা বিএনপির সদস্য নিজাম উদ্দিন ভূঁইয়া আগামীকাল বৃহস্পতিবারের (১৪ সেপ্টেম্বর) মধ্যে কারাবন্দি নেতাদের মুক্তি দিতে আল্টিমেটাম দেন। তা না হলে কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে বলে জানান।
বিক্ষোভ মিছিল শেষে বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে নিজাম উদ্দিন ভূঁইয়া এ কথা বলেন। এর আগে জেলা বিএনপির ব্যানারে শহরের গোডাউন রোড এলাকা থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। এসময় মিছিলটি বিএনপির প্রচারপ্রতিবাদ সভায় সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানির লক্ষ্মীপুরের পুরাতন গো হাটা রোডের বাসভবন প্রাঙ্গণে গিয়ে সমাবেশে মিলিত হয়।
বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সদস্য হারুনুর রশিদ বেপারী, সদর (পূর্ব) উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক মাঈন উদ্দিন চৌধুরী রিয়াজ, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ফেরদৌস আহমেদ মানিক, লক্ষ্মীপুর পৌর বিএনপির আহ্বায়ক মাহবুবুর রহমান লিটন, সদস্য সচিব অধ্যাপক নিজাম উদ্দিন, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক রেজাউল করিম লিটন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মহসিন কবির স্বপন ও সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ ও অন্যান্যরা।
এ সময় জেলা বিএনপির সদস্য নিজাম উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, ১৮ জুলাই আমাদের শান্তিপূর্ণ পদযাত্রা কর্মসূচিতে বিনা উসকানিতে পুলিশ আমাদের ওপর হামলা করে। ওইদিন আমাদের শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আমাদের কৃষক দল নেতা মো. সজিবকে কুপিয়ে হত্যা করেছে।
এরপর পুলিশ আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। এটি ন্যাক্কারজনক ঘটনা। তবে এসব মামলা-হামলা দিয়ে আমাদের আন্দোলন দাবিয়ে রাখা যাবে না। শেখ হাসিনার পদত্যাগের এক দফা দাবিতে শেষ পর্যন্ত আমরা মাঠে থাকবো। তার পতন ছাড়া আমরা রাজপথ ছাড়বো না। অন্যায়ভাবে ফরমায়েশি আদেশ দিয়ে জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক হাসিবুর রহমানসহ ২৫ নেতাকর্মীকে কারাবন্দি করা হয়েছে। আগামীকালের (বৃহস্পতিবার) মধ্যে তাদেরকে মুক্তি না দিলে কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে। আন্দোলনের মাধ্যমেই তাদেরকে মুক্ত করে আনা হবে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গত ১৮ জুলাই বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচি চলাকালে সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ৫৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৩ হাজার জনের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা করে। দুই মামলাতেই বিএনপির প্রচার সম্পাদক ও জেলা কমিটির আহ্বায়ক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানিকে প্রধান আসামি করা হয়। ১০ সেপ্টেম্বর আদালতে জামিন শুনানি থাকলেও বিএনপি নেতা শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবুল খাঁয়ের ভূঁইয়া, জেলা বিএনপির সদস্য সচিব সাহাব উদ্দিন সাবু আদালতে উপস্থিত হননি। তাদের অনুপস্থিতিতে আদালত তিনজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। ১০ ও ১১ সেপ্টেম্বর একই মামলায় জামিন নামঞ্জুর করে লক্ষ্মীপুর জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক হাছিবুর রহমান, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি হাসান মাহমুদ ইব্রাহিম ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ ২৫ জনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

দেশ জার্নাল বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়