সোমবার, ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

মোবাইল ফোনের অতিকথনের খেসারত মেয়ের লাশ পুকুরে ভাসে

 

নুরুল আমিন ভূঁইয়া দুলাল নিজস্ব প্রতিবেদক

লক্ষ্মীপুরে ফোনে কথা বলছেন মা, পুকুরে ভাসছে মেয়ের লাস
সৌদি প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলছিলেন লক্ষ্মীপুরের গৃহবধূ জান্নাত আক্তার। এসময় ঘরের বাইরে শিশু সোহানা আক্তার (২) খেলছিল বলে জানা যায়। ফোনে কথা বলার শেষ পর্যায়ে কিছুক্ষণ পর সোহানাকে দেখতে না পেয়ে আশপাশে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন সবাই।
এ সময় খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে শিশুটিকে পুকুরের পানিতে ভাসতে দেখা যায়। তখন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতাল নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মঙ্গলবার (৩ অক্টোবর) সকাল ১১ টার দিকে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ভোলাকোট ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সাহাপাড়া গ্রামে নানার বাড়িতে এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানা যায় । সোহানার মৃত্যুতে স্বজনরা কান্নায় ভেঙে পড়েন।
সোহানা একই ইউনিয়নের লক্ষ্মীধরপাড়া গ্রামের পাটওয়ারী বাড়ির সৌদি প্রবাসী সাইফুল ইসলামের মেয়ে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ভোলাকোট ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার কাউছার আলম সুমন জানান, কয়েকদিন আগে মা জান্নাতের সঙ্গে সোহানা নানাবাড়িতে বেড়াতে আসে। আজ তাদের বাড়ি ফিরে যাওয়ার কথা ছিল। ঘটনার সময় জান্নাত তার স্বামীর সঙ্গে মোবাইলফোনে কথা বলছিলেন দীর্ঘক্ষণ ধরে। এসময় সোহানা বাইরে খেলছিল। কিছুক্ষণ পর তাকে না দেখে তার মা আশপাশে খোঁজ করেন। একপর্যায়ে শিশুটিকে পুকুরের পানিতে ভাসতে দেখা যায়।

তিনি আরও জানান, সোহানার মরদেহ তাদের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানেই তার মরদেহ দাফন করা হবে।

দেশ জার্নাল বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

----- সংশ্লিষ্ট সংবাদ -----